Bengali Incest সুন্দর শহরের ঝাপসা আলো

বাংলা সেক্স গল্প,Bānlā sēksa galpa,যৌন গল্প,Discover endless Bengali sex story and novels. Browse Bengali sex stories, bengali adult stories ,erotic stories. Visit psychology-21.ru
User avatar
admin
Site Admin
Posts: 1518
Joined: 07 Oct 2014 01:58

Re: Bengali Incest সুন্দর শহরের ঝাপসা আলো

Unread post by admin » 12 Apr 2020 04:16

ভাবতে ভাবতে কোথায় হারিয়ে গিয়েছিল সুমিত্রা....আর সঞ্জয় কখন ঘুমিয়ে পড়েছে সে জানতেই পারলো না...ছেলে এখন নিদ্রায়...তার ধীরে আর লম্বা নিঃশাস থেকে বোঝা যায়.
সুমিত্রার রসালো যোনি এখন জবজব করছে....
আর দেরি করলে চলবে না....বর ঘুমিয়ে পড়লে সর্বনাশ...
অনেক দিনকার যৌন উপোসী.....ক্ষুদার্ত এবং লালায়িত যোনি সুমিত্রার তর সইছে না.
ছেলের মাথা টা আস্তে করে বালিশের মধ্যে রেখে...টুক টুক করে চলে গেলো বরের গরম বিছানায়.
নাহঃ পরেশনাথ এখনো জেগে আছে...সেও আজ তার শক্ত লিঙ্গ দিয়ে বউয়ের যোনি মর্দন করবে।
সুমিত্রা তড়িঘড়ি বরের পাশে এসে শুয়ে পড়লো...ফিসফিস করে বলল, “তুমি জেগে আছো তো..”
পরেশনাথ কিছু বলল না....পাশ ফিরে বউকে জড়িয়ে ধরে নিলো.....সুমিত্রার নরম শরীরের ছোওয়া.....তাকে উত্তেজিত করতে সময় নিলো না...
লুঙ্গির ভেতর থেকেই তরজড়িয়ে বাড়তে থাকল লিঙ্গের দীর্ঘতা...
আরও জাপটে ধরল বউকে
শক্ত হাত দিয়ে বেশ কয়েকবার মর্দন করে দিল সুমিত্রার রসালো দুধ দুটোকে....
তারপর গলা পার করে লুঙ্গি খুলে দিয়ে নগ্ন হয়ে গেল সে...
প্রায় আট ইঞ্চি লম্বা বিশাল ধোনটা ফুঁসছে....সুমিত্রার শরীরে প্রবেশ করার জন্য...
আবার ফিসফিস করে বলল সে....”দাও না গো...”
“আমি আর পারছি না....সুখ ভরে দাও....আমাকে”
সুমিত্রার কামুকী গলার স্বরে পরেশনাথের মন চঞ্চল হয়ে আসছিলো...লিঙ্গের সর্বোচ্চ দৈর্ঘ্য অর্জন করে ফেলে ছিল সে.
একবার নিজের ডান হাতটা দিয়ে বউয়ের যোনিতে হাত বোলাতে বোলাতে, যোনি গহ্বরে একটা আঙ্গুল প্রবেশ করিয়ে দিল সে...কামরসে পুরো জবজব করছে...সুমিত্রার মাতৃছিদ্র..
সেখান থেকে নিজের হাত বের করে আনে পরেশনাথ আর হাতের মধ্যে লেপ্টে থাকা যোনিরসকে নিজের উত্তিত লিঙ্গের মধ্যে ভালো ভাবে মাখাতে থাকে....এদিক ওদিক করে.
সুমিত্রার তা দেখে আরও জোরে জোরে নিঃশাস পড়তে থাকে...
আবার স্বামীকে জড়িয়ে ধরে নিজের দিকে টানতে থাকে....এবার ও নিজে বরের লিঙ্গ টাকে বা হাত দিয়ে শক্ত করে ধরে...আর আলতো করে ওঠা নামা করতে থাকে..
পরেশনাথের তাতে কাম ভাব আরও প্রখর হয়ে ওঠে....সুমিত্রার সুন্দরী কোমল হাতের স্পর্শ....ধোনের মধ্যে এক আলাদা শিহরণ জাগিয়ে তোলে...
ওদিকে...বালক সঞ্জয় মাতৃক্রোড়ে মাথা রেখে নিদ্রা সুখ নিতে নিতে কোনো এক নন্দন কাননে প্রবেশ করে গেছে...
স্বপ্ন দেখছে সে...ওর মা কোনো এক রাজরানী....সারা গায়ে তার বহুমূল্য অলংকার আর দামি বস্ত্র দ্বারা আবৃত.
অতীব সুন্দরী লাগছে....মাকে
একসাথে ওই প্রাঙ্গনে খেলা করছিলো তারা দুজনে...মা ছুটছিল আর ছেলে ধরছিল..
তখুনি আকাশপথে রথ উড়িয়ে কোনো এক রাজা তাদের ওই প্রাঙ্গনে এসে উপস্থিত হলো...
সেই রাজার মুখ সঞ্জয় মনে করতে পারছিলো না...অচেনা...পেশীবহুল পুরুষ.
ওর মায়ের উপর প্রলুপ দৃষ্টি তার....সঞ্জয়ের সেটা মোটেও ভালো লাগলো না .
“মা..তুমি আমার সাথে থাকো...” এক কাতর বিনতি ছেলে সঞ্জয়ের.
মা তাকে আশ্বাস দেয়...ইশারায়..
আবার তারা লুকোচুরি খেলাতে মেতে যায়...মা লুকায় আর ছেলে খোঁজে..
সঞ্জয় এদিকে ওদিকে ছুটোছুটি করে...মাকে খোঁজে...কিন্তু কোথাও দেখতে পায়না...
মন ব্যাকুল হয়ে ওঠে তার....মা তাকে ফেলে রেখে কোথায় চলে গেলো....
মা !! মা !! বলে সমানে ও সজোরে ডেকে বেড়ায় সে...
ওই মা ওখানে আছে বোধহয়....মাকে দেখা যায়না তবে....মায়ের সেই শির্শিরানি গলার আওয়াজ শুনতে পায় সে.
স্বপ্নের মধ্যেই আবার ভয় পেয়ে যায় সে....
সেই দিনকার মতো মায়ের গলার স্বর....মিষ্টি আর ফিনফিনে...
তাহলে আজও কি তাই...?? মায়ের সঙ্গে...???
চঞ্চল অস্থির মন নিয়ে, হন্তদন্ত হয়ে মাকে খোঁজার চেষ্টা করে বালক সঞ্জয়..
অবশেষে ঐতো....সেই ঝোপটা না...?
কেমন নাড়াচাড়া করছে...
ঐতো মা চিৎ হয়ে শুয়ে আছে....আর সাথে ওই রাজা...?? নাহঃ...
সেই দস্যি বুড়ো...
মায়ের গায়ের উপর শুয়ে একনাগাড়ে কোমর নাচাচ্ছে...
ভীষণ রাগ হয় সঞ্জয়ের...আজ শুয়োর টাকে মেরেই ফেলবে....
দৌড়ে ছুটে যায় তাদের দিকে...মা...!! মা...!! চিৎকার করে সে...
আচমকা ঘুম ভেঙে যায় ওর... স্বপ্ন দেখছিলো....সে...মনে মনে বলে ওঠে...
আর মাথার নিচে মায়ের মুলায়ম কোল....কোথায় গেলো..??
এবার বাস্তবে মায়ের অনুপস্থিতি অনুভব করে সঞ্জয়...
অন্ধকার ঘরে এদিক ওদিক তাকায়...
ঘরের ভেতরে পরেশনাথ ততক্ষনে সুমিত্রার সুমিষ্ট যোনিতে লিঙ্গ স্থাপন করে...সুমিত্রার যোনি মৈথুনের সুখানন্দ নিচ্ছিলো...
আর সুমিত্রাও বরকে দুই বাহূ দিয়ে শক্ত করে জড়িয়ে ধরে ছিল...নিজের ভরাট স্তনের সাথে...পরেশনাথের কসরত করা বুক সাঁটিয়ে দিয়ে.
কখনো স্বামীর মাথায় হাত বুলিয়ে দেয়, কখনো পিঠে...
আর উত্তেজনা বসত পরেশনাথ যখন বউয়ের যোনিতে দীর্ঘ লিঙ্গাঘাত করে...তাতে শিউরে ওঠে সুমিত্রা...
আজও আবার মায়ের মুখে সেই দিন কার মতো শব্দ শুনতে পায় সঞ্জয়..., মিষ্ট মন্থর গতিতে গোঙ্গানি....মমমমম....মমহ হহ মম...সাথে শাঁখা পলার ঠোকা ঠুকি শব্দ..
না এ স্বপ্ন নয়...প্রখর বাস্তব...বাবা মায়ের শোবার ঘর থেকে আসছে সে শব্দ..
যে শব্দ সঞ্জয় কে বিচলিত করে তোলে...এমন মনে হয় যেন কেউ তার মাকে ওর কাছে থেকে ছিনিয়ে নিচ্ছে. অথবা মা তার অধিকার তার প্রাপ্য ভালোবাসা অন্য কাউকে দিয়ে দিচ্ছে..মা কি তাকে ভালোবাসে না...তাকে ভুলিয়ে, তাকে ঘুম পাড়িয়ে..অন্যত্র চলে যাচ্ছে.
ভেতর ঘর থেকে মায়ের এই ছটফটানি এবং মধুর চিৎকার তার হৃদপিন্ড সহ সারা শরীরে এক বিচিত্র স্রোত চালিত করে দিয়েছে..
সেদিন ও সেরকম হয়েছিল...বুড়ো লোকটা মায়ের সাথে কি যেন করছিলো..
মায়ের মৈথুনরত তৃপ্ত ধ্বনি যখনি সঞ্জয়ের কানে আসছে তখুনি তার শরীর আনচান করে উঠছে.
যেন গায়ে জ্বর আসবে তার...
নাহঃ আজ দেখিতো মা ভেতর ঘরে কি করছে...মনে মনে বলে সঞ্জয়..
খুব কষ্ট করেই বিছানা থেকে উঠে পড়ে সে...কারণ বাবা মা যদি দেখে যে সে এতো রাত অবধি না ঘুমিয়ে জেগে আছে তাহলে ওর নিস্তার নেই, ধমক দিয়ে দিতে পারে বাবা তাকে.
অবচেতন মন চাইনা সে বিছানা থেকে উঠে বাবা মায়ের যৌন ক্রীড়া দেখুক... তাই হয়তো উঠবার সময় ওর সারা শরীর দুরু দুরু কাঁপছিলো. শরীরে এক অজানা উত্তেজনা ভর করে ছিল..স্থির থাকতে পারছিলো না সে.
পা দুটো কাঁপছিলো যখন সে বিছানা থেকে নামবার চেষ্টা করছিলো..
মনে শুধু মায়ের জন্য চিন্তা....মায়ের সুরক্ষা তাকে উদ্বিগ্ন করে তুলেছিল.
নিজের দম বন্ধ হয়ে আসছিলো....
এই এক আশ্চর্য অনুভূতি....বাবা যখন মাকে মারে...সে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখে...কিছু করার থাকেনা তার...তখনও ক্রন্দনরত মাকে দেখে এমন অনুভূতি জাগে না তার মধ্যে.
আজ হয়তো সে সব কিছু জানার চেষ্টা করবে...ভেতরে মা কি করছে..
ভাবতে ভাবতে সে ততক্ষনে ঘরের দরজার সামনে উপস্থিত হয়ে পড়েছে..
এবার শুধু উঁকি মেরে দেখার পালা..
খুবই ভয় হচ্ছিলো তার, এভাবে রাতের বেলা বাবা মায়ের শোবার ঘরে উঁকি মারার অভিজ্ঞতা তার জীবনে প্রথম.
আস্তে আস্তে সামান্য মাথা তবকিয়ে দেখার চেষ্টা করে সঞ্জয়...একি....!!!!